কাঠের ধরণ কাঠের দাম (প্রতি কেবি)
১. আকাশি বা একাশি কাঠ ১৮০০-২০০০ টাকা
২. মেহগনি কাঠ ৭০০ - ১৫০০ টাকা
৩. পুরাতন লোহা কাঠ ৪০০০-৫০০০ টাকা
৪.বার্মিজ লোহা কাঠ ৪০০০-৭০০০ টাকা
৫.নাইজেরিয়ান লোহা কাঠ ১৮০০-২৪০০ টাকা
৬. চিটাগাং সেগুন কাঠের কাঠ ৩৫০০-৫০০০ টাকা
৭.যশোর সেগুন কাঠ ২৫০০-৩০০০ টাকা
৮.নিম কাঠ ১৫০০-১৬০০ টাকা
৯.কড়ই কাঠ ৬০০-১২০০ টাকা
১০.কাঠাল কাঠ ২৪০০-৩০০০ টাকা
১১.ফুল গামারি কাঠ ১৫০০-১৭০০ টাকা
১২.শীল ঘামারি প্রতি সেফটির দাম কাঠ ১৮০০-২০০০ টাকা

স্থান বা এলাকা ভেদে দামের কিছুটা তারতম্য হতে পারে।

স- মিল থেকে কাঠ কিনার সময় ৩ টা বিষয় খেয়াল রাখবেন তাহলে ঠকার কোনো রকম সুযোগ থাকবে না!

  • কাঠের দাম যেই কাঠ কিনবেন অন্তত কয়েকটা স- মিলে এ দাম যাচাই করে নিবেন।
  • কাঠের পরিমাপ টা ভালো করে বুঝে নিবেন। অধিকাংশ ক্ষেত্রে স-মিলের লোকেরা পরিমাপে কম দেয়।  মাপের বিষয় টা আগে থেকেই বলে নিবেন সঠিক মাপে কাঠ দিবেন।
  • কাঠ কেনার আগে যে গাছের কাঠ কিনবেন সেই গাছটি দেখে নিবেন।  সবসময় মোটা ও পোক্ত গাছে  কাঠ কিনার চেষ্টা করবেন।  চিকন গাছের কাঠ বেশি টেকসই হয় না। ভালো  গাছে শার দেখে নিবেন।
এই বিষয় গুলো যদি আপনি বুঝেন তাহলে কাঠ কিনে ঠকার সুযোগ নেই। যদি না বুঝেন কাঠ কিনার আগে একজন কাঠ মিস্ত্রি নিয়ে কাঠ কিনতে যাবেন। তবে খেয়াল রাখবেন মিস্ত্রি স- মিলের মালিকের সাথে গোপনে আগে থেকেই যেনো আলাপ করে না রাখে।

2 Comments

  1. ধন্যবাদ , এত সুন্দর পোষ্ট এর জন্য।

    ReplyDelete

Post a Comment

Previous Post Next Post